The Story of a Murderer (2006) Bangla Review

0
15

Perfume: The Story of a Murderer (2006) পঞ্চ ইন্দ্রিয়ের একটি হলো নাসিকা, পৃথিবীর প্রতিটা জিনিষের রয়েছে নিজস্ব আলাদা গন্ধ/দুর্গন্ধ, দু চোখে আমরা এইযে যা দেখি মাটি, পাথর, পাতা, গাছ, পানি এমনকি প্রতিটা জন্তুর, বস্তুরও রয়েছে আলাদা গন্ধ যা মানুষ বা সব জীব জন্তুই অনুভব করতে পারে তার নাক দিয়ে, আমাদের ঘ্রাণ শাক্তি কতোটুকু? কেউ সুগন্ধি লাগিয়ে আসলে বা দুর্গন্ধ জড়িয়ে আসলে আমরা টের পাই, আমাদের ঘ্রানশক্তির একটা পরিমাপ আছে এর বেশী ঘ্রাণ বা এর থেকে দূরের বস্তুর ঘ্রাণ আমরা পাইনা, যতোটুকু জানি সবচেয়ে বেশী ঘ্রাণ শক্তি রয়েছে কুকুরের যা মানুষে থেকেও ৫গুণ (মতান্তরে ইঁদুর, পিপিলিকা, হাতি) যদি বলি এর থেকেও শতগুণ প্রখর ঘ্রাণ শক্তি আছে কোনো মানুষের তাহলে??হ্যাঁ Perfumeএ সেই চরিত্রের চিত্রায়নই করা হয়েছে,১৯৮৫ সালে জার্মানের বিখ্যাত লেখক প্যাট্রিক সাসকাইন্ড রচনা করেন “Perfume” নামের বিশ্ববিখ্যাত বইটি। যা পৃথিবীর ৪৫টি ভাষায় অনুদিত হয়েছে। আর সেই বিশ্ববিখ্যাত বইকে পর্দায় নিয়ে আসতে হুট করেই সিদ্ধান্ত নেন জার্মান পরিচালক টম টাইকার। বইটির লেখক শঙ্কিত ছিলেন তার বইয়ের চরিত্রগুলো উপস্থাপনে ব্যার্থ হওয়ার সম্ভবনাই বেশী তাই সে বিগত ১৫বছর বিভিন্নজন থেকে অফার পেয়েও ফিরিয়ে দেন, অবশেষে ২০০০সালে তিনি গল্পটি তুলে দেন টম টাইকারের হাতে।

বাট মেইন ক্যারেক্টার কে প্লে করবে?? তা নিয়ে ধুম্রজালের শেষ ছিলো না সবাইকে অবাক করে পরিচালক সুদূর ইংল্যান্ড থেকে ধরে নিয়ে আসলেন Ben Whishaw নামক এক নতুন মুখ। এই নতুন মুখ নিয়ে সমালোচকরা পরিচালকের জাত উদ্ধার করতে ভুলে যাননি। এই নতুন মুখ কতটা দিতে পেরেছে তা প্রশ্নসাপেক্ষ, কিন্তু প্রথম মুভিতেই জাত চিনাতে ভুল করেনি এই তরুণ অভিনেতা। যেনো অভিনয়টা একটা শিল্প আর সে নিখুঁত শিল্পী। অভিনয় দিয়ে মুখ বন্ধ করেছেন বড় বড় সিনেবোদ্ধাদের।অভিনয় কাকে বলে,চরিত্রের মধ্যে মিশে যাওয়া কাকে বলে, এটা সে দেখিয়ে দিয়েছে, ঘটনা প্রবাহে কঠিন পরিস্থিতিতেও এক্সপ্রেশনটা শুধু সুবাসবিদ্ধ রাখার যে অভিনয়টা সত্যিই অবাককর।

আসলে কিছু মুভি ভিতরে খুব চাপ ফেলে, হাজার ট্যানশনেও মুভিটি মাথা থেকে সরানো মুশকিল হয়ে পরে, আমি তথাকথিত কমার্শিয়াল মুভি যেগুলোর মূল উপাদান ফাইট,কমেডি,রোমাঞ্চ সেগুলোর কথা বলছিনা, এসব মুভি দেখার পর যদি ভালোও লাগে তার স্থায়িত্ব থাকবে বড়জোর ২ঘন্টা এর পর কেউ জিজ্ঞেস করলে অনিহা দেখাবেন বা বলবেন “ভালোই,খারাপ নাহ”…..বাট আমি যে মুভির কথা বলছি সেটা দেখার পাঁচ বছর পরেও কেউ মুভির কথা অনিচ্ছায় মনে করিয়ে দেয় আপনি আবার দেখার জন্যে মনস্থ করবেন।

Perfume: The Story of a Murderer (2006) মুভিটির কোন দিকটা আপনার ভালোলেগেছে নির্দিষ্ট করে বলা বহুত কঠিন হয়ে যাবে সিনেমাটোগ্রাফি, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক, সেট, একদম ক্ষুদ্র বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দেওয়া, পুরো মুভিটার মেকিং স্টাইল, কাহিনী প্রবাহ, পরিবেশ, চরিত্রগুলোর গতিবিধি, এবং চূড়ান্ত পরিণতির দিকে আস্তে আস্তে ধাবিত হওয়া আপনাকে শুধু অবাকই করবেনা রীতিমত অভিভূত করবে। মুভিটা যেহেতু সুগন্ধি নিয়ে, সুগন্ধি উৎপাদনের শহর প্যারিসকে নিয়েই গড়ে উঠেছে পারফিউম মুভির গল্প। আমরা যতোটুকু জানি/শুনেছি প্যারিস কবি সাহিত্যিকের দেশ, ছবির দেশ কবির দেশ। কিন্তু তা না শুধু, সতেরো আঠারো শতকের দিকে প্যারিস ছিল সুগন্ধি উৎপাদনের সর্গরাজ্য। এই আধুনিক যুগে ১৮শত দশকের সেই প্যারিসকে চিত্রায়ন যেভাবে করা হয়েছে, এতো নিখুঁত পরিবেশন আমি আগে দেখিনি, কোনো ভাবেই মনে হবেনা এটা এই সময়ের মুভি। মুভি দেখতে দেখতে কখন আপনি হঠাৎ চলে যাবেন সেই সময়ে টের ই পাবেন না..মুভিটিকে জনরা ভিত্তিকভাবে সাঁজালে চলে আসবে ডার্ক থ্রিলার এর নাম, সাথে ড্রামা, এবং কিছু ফ্যান্টাসিও পাবেন।

প্লট/গল্প নিয়ে বলতে গেলে বলা যায়… আবর্জনা,ময়লা,ডাস্টবিন থেকেও দুর্গন্ধযুক্ত পল্লীর মাছ বাজারের তলনীতে জন্ম নেয় এক শিশু, আগের তিনটি সন্তানের মতো এই শিশুকেও ফেলে দেয় নর্দমায় তার নির্মম মা। ঘটনা চক্রে তার আশ্রয় হয় এক আশ্রমে, সেখান থেকে চামড়া ব্যবসায়ীর কাছে এবং শিশু অবস্থাতেই সে নিজেকে আবিষ্কার করে, বুঝতে পারে তার আছে একটা নিজস্বতা, রয়েছে প্রখর ঘ্রাণ শক্তি, এই সুগন্ধি কে কিভাবে স্থায়ী করে রাখা যায়, বিভাবে পৃথিবীর সেরা পারফিউম তৈরী করে রাখা যায় সেই নেশায় পেয়ে বসে তাকে, এটা নেশা নয় আসক্তি, এরপর?? অবশ্যই মুভিটি দেখতে হবে।গল্পের প্রথমেই আপনাকে গল্পের গভীর থেকে কেউ খিচে টাঁন দিবে,আর হারিয়ে যাবেন সেই জগতে।

মুভিটির দেখা শেষে তার পরতে পরতে নতুন কিছু আর সাথে মাথায় থেকে যাওয়া ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকের এই ডার্ক থ্রিলার, ফ্যান্টাসি মুভিটি খুবই কষ্টকর হয়ে দাড়াবে মাথা থেকে সরিয়ে ফেলার জন্য। একই সাথে প্রচন্ডভাবে আকর্ষণীয় কিন্তু অতিমাত্রায় ভয়াবহ।

শুধু কি তাই? পারফিউম জার্মান ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যায়বহুল মুভি, এই মুভি তৈরি করতে পরিচালককে বাজেট নিতে হয়েছে অনেক। তৈরী করতে হয়েছে ৫হাজার কলাকৌশলীর একটা মুভি সেট, ঘুরে বেড়াতে হয়েছ ইউরোপের গোটা দশেক দেশে, মুভির গ্রাফিক্স থেকে শুরু করে সাউন্ড কোয়ালিটি সবকিছুই প্রশংসার দাবী রাখে। এক নজরে মুভিটি….

Perfume: The Story of a Murderer

Year: 2006

Origin: Germany

Language: English

Cast: Ben Whishaw, Alan Rickman, Rachel Hurd-Wood, Dustin Hoffman

Directed by: Tom Tykwer

Based on: ‘Perfume’ by Patrick Süskind

IMDb Rating: 7.5/10 My Rating: 9/10

Box Office: 165 million/60 million

লিখেছেনঃ Rafee Adnaan

অন্যান্য ব্লগ পড়তে ক্লিক করুন

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here