Oldboy (2003) Movie Bangla Review

0
19

Movie: Oldboy (2003)

Genre: Thriller/Korean / 18+ Warning

Google rating:90%

IMDb:8.4/10

PR:9/10

Little Spoiler Warning

Oldboy (2003) Movie Bangla Review

আমি আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি আমার পছন্দের আসাধারন একটা থ্রিলার মুভি। মুভির গল্পটা হলো ‘ওহ ডাই-সু’ নামে এক ব্যক্তিকে নিয়ে। যাকে এক বৃষ্টির রাতে মাঝ রাস্তা থেকে কিছু লোক তুলে নিয়ে যায়। তার যখন জ্ঞান ফিরে সে নিজেকে একটি জানালাহীন এবং জরাজীর্ণ হোটেলের রুমে বন্দী অবস্থায় পায়। তার ওপর সর্বদা কয়েকজন গার্ড নজর রাখতো কিন্তু মজার বিষয় হচ্ছে ডাই-সু তাদের উপস্থিতি বুঝতে পারলেও কখনই তাদের দেখতে পেতো না। গার্ডরা তাকে সময় মত খাবার দিতো, রুমে চেতনা নাশক ধূয়া প্রবেশ করিয়ে ডাই-সুকে অজ্ঞান করে রুম পরিষ্কার করতো, তার শরীর পরিষ্কার করে দিতো এমনকি চিকিৎসার প্রয়োজন হলে চিকিৎসাও করত। এভাবেই কেটে যাচ্ছিল দিন মাস বছর। সে নিজেও জানত না তাকে কোন অপরাধে এখানে বন্দী করে রাখা হয়েছিল আর কতো দিনই বা এখানে কাটাতে হবে। এই সব কিছুতে সে খুব বিরক্ত হয়ে গেছিল। তাই সে কয়েক বার আত্তাহত্যা / সুইসাইড করার চেষ্টা করলো কিন্তু প্রতিবার ব্যার্থ হল। কারন গার্ডরা তাকে না দিচ্ছিল শান্তিমত মরতে না দিচ্ছিল শান্তি মত বাঁচতে। তাকে কোন অপরাধে এখানে বন্ধি করে রাখা হয়েছিল সেইটা ভুলে ডাই-সু প্লান করা শুরু করলো সে কিভাবে এখান থেকে বের হতে পারবে এবং কিভাবে যারা এখানে তাকে বন্দী করে রেখেছে তাদের শাস্তি দিবে।একজন অপরাধীকে কেন জেলে রাখা হয় জানেন? যাতে সে তার কৃতকাজের জন্য অনুতপ্ত হয়ে অনুশোচনা করতে পারে। কিন্তু ১৫ বছর বন্দী থাকার পরও ডাই-সুর ক্ষেত্রে এমন কিছুই হলো না। অনুতপ্ত অনুশোচনা তো দূরে থাক তার মধ্যে বরং প্রতিহিংসার বিষয়টা আরও বেডে গেল । তার মধ্যে কোন পরিবর্তন না আসায় ডাই-সু কে লাকেজে ভরে বাইরে ছেডে দেয়া হল। দীর্ঘ ১৫ বছর পর মুক্তি পাবার পর যার জন্য সে জেলে ছিল তাকে খুঁজা শুরু করল। এমনকি খুবব সহজেই সে খুঁজেও বের করল। কিন্তু বিপত্তিটা ঘটলো তখন যখন ডাই-সু লোকটাকে মেরে ফেলতে গেলো কিন্তু লোকটা ডাই-সু কে বলল, “””তুমার ইচ্ছা হলে তুমি আমাকে এখনি মেরে ফেলতে পারো আমি তুমাকে বাধা দেবনা। কিন্তু তুমি কি জানতে চাও না তুমি ১৫ বছর কেন ওই জেলে বন্দী ছিলে তুমার অপরাধটা কি ছিল ? আমি ভেবেছিলাম ১৫ বছর সেখানে বসে বসে এর উত্তরটা তুমি ঠিক খুজে বের করবে। কিন্তু তুমি তো প্রতিশোধের চিন্তা মগ্ন ছিলে। আমি তুমাকে এর উত্তরটা দেবোনা, তুমাকেই এই উত্তরটা খুঁজে বের করতে হবে আমি শুধু তুমাকে কিছু ক্লু দেব।”””

লোকটা তাকে ৫ দিনের সময় দেই এর উত্তর খুঁজে বের করার জন্য। আর না পারলে সে তার প্রেমিকাকে মেরে ফেলবে।

কে না জানতে চাইবে এর উত্তরটা আপনিই বলুন?? ডাই-সু যদি তখন লোকটাকে মেরে ফেলতো তাহলে সে সারা জীবনেও এর উত্তর খুজে পেতো না। আর এর আক্ষেপটা তাকে সারাজীবন ধরে বয়ে বেডাতে হতো। তাই ডাইসু এর উত্তরটা জানার জন্য তার দেয়া ক্লু গুলো দিয়ে অনুসন্ধান শুরু করে। আর মুভিটার আসল গল্পটা শুরু হয় এখান থেকে। তার পর বেরিয়ে আসতে থাকে একের পর এক মাথা ঘুরিয়ে দেয়ার মত তথ্য। যা নিঃসন্দেহ আপনার মাথা ঘুরিয়ে দেবে। মুভির শেষের দিকে লোকটা ডাই-সু কে এমন একটা তথ্য দেবে যা শুনার পর আপনার মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পরার মত অবস্থা হবে। যেদিন মুভিটা দেখেছিলাম সেদিন রাতে আর শান্তির মত ঘুমতে পারি, মুভির সেই কথা এগুলোই মাথায় গুর-পাক খাচ্ছিল। মুভি দেখার পর ৪-৫ দিন আমি শুধু এটা নিয়েও ভাবছিলাম এ কেমন অদ্ভুত প্রতিশোধ!!! মুভিটি এক কথায় বলতে গেছে অসাধারণ লেগেছে।

সচারাচর এমন মাস্টারিপিস থ্রিলার মুভি খুঁজে পাওয়া যার না। কি নেই এই মুভিতে? মাথা ঘুরিয়ে দেয়ার মত অভিনয়, ইমোশন, এক্সপ্রেশন , প্রতি মিনিটে মিনিটে নতুন চমক এবং সম্পূর্ণ মুভি জুডে ডাই-সু চরিত্রে “ছোই মিন-সিক” এই অভিনয় গুলোও ছিল সেই রকমের দেখার মতো । এই মুভিটা মিস করলেন মানে আপনি আপনার জীবনের সব চেয়ে ভালো মাস্টারপিস থ্রিলার মুভিটা মিস করলেন। শেষ করার আগে একটা কথা মুভিটা অবশ্যয় একা দেখবেন হাল্কা নুডুডিটি আছে।

লিখেছেনঃ Asif Hossain

অন্যান্য ব্লগ পড়তে ক্লিক করুন

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here